জুন ১৮, ২০২১
MIMS TV
আন্তর্জাতিক এই মাত্র পাওয়া প্রিয় লেখক মু: মাহবুবুর রহমান যুক্তরাষ্ট্র

জো বাইডেন ও কমলা হ্যারিস পারসন অফ দ্য ইয়ার ২০২০

মু: মাহবুবুর রহমান 

যৌথভাবে টাইম ম্যাগাজিনের ২০২০ পার্সন অফ দ্য ইয়ার (TIME Magazine’s Person of the Year 2020) কিংবা ‘বর্ষসেরা ব্যক্তিত্ব’ হয়েছেন  যুক্তরাষ্ট্রের নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস। ১০ই ডিসেম্বর সন্ধ্যায় ২০২০ সালের সেরা ব্যক্তিত্ব হিসেবে যৌথভাবে তাঁদের নাম ঘোষণা করে যুক্তরাষ্ট্রের প্রভাবশালী টাইম ম্যাগাজিন। এর মাধ্যমে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে আরো একবার হারিয়ে দিলেন জো বাইডেন ও কমলা হ্যারিস। কারণ ২০২০ সালের পার্সন অফ দ্য ইয়ারের সংক্ষিপ্ত তালিকায় ডোনাল্ড ট্রাম্পের নামও ছিলো।

প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ছাড়াও এ বছর ‘পারসন অফ দ্য ইয়ার’ হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে ছিলেন , যুক্তরাষ্ট্রের সংক্রামক রোগ বিশেষজ্ঞ ও হোয়াইট হাউসের করোনা টাস্কফোর্সের গুরুত্বপূর্ণ সদস্য অ্যান্থনি ফাউচি ও তার সঙ্গে করোনাভাইরাস মোকাবিলায় লড়া সম্মুখসারির স্বাস্থ্যসেবা কর্মীরা এবং বর্ণবাদবিরোধী ‘দ্য মুভমেন্ট ফর রেসিয়াল জাস্টিস’ আন্দোলন।

তবে শেষ পর্যন্ত এবারের মার্কিন নির্বাচনে ক্ষমতাসীন ডোনাল্ড ট্রাম্পকে হারিয়ে দেয়ায় চূড়ান্তভাবে টাইমের পারসন অফ দ্য ইয়ার নির্বাচিত হলেন বাইডেন। তার সঙ্গে এ সম্মাননা দেয়া হয়েছে কমলা হারিসকেও। যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে তিনিই প্রথম নারী ভাইস প্রেসিডেন্ট । কমলা হারিস আবার যুক্তরাষ্ট্রের প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ নারী ও ভারতীয় বংশোদ্ভূত প্রথম ভাইস প্রেসিডেন্ট । ৭৮ বছর বয়সী বাইডেন ও ৫৬ বছর বছর বয়সী হ্যারিসের ছবি প্রচ্ছদ করে টাইমের উপশিরোনাম দেয়া হয়েছে, ‘আমেরিকার ইতিহাসে পরিবর্তন’।

এ বছর ‘পারসন অফ দ্য ইয়ার’ ঘোষণা করতে গিয়ে টাইম ম্যাগাজিনের প্রধান সম্পাদক এডওয়ার্ড ফেলসেনথাল লিখেছেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের কাহিনী পাল্টে দিয়ে, সহমর্মিতার শক্তি যে বিভাজনের উন্মত্ততা থেকে শক্তিশালী সেটি দেখিয়ে, আঘাতে জর্জরিত পৃথিবীকে সারিয়ে তোলার স্বপ্ন হাজির করে ২০২০ সালে টাইমের “পারসন অফ দ্য ইয়ার” হয়েছেন জো বাইডেন ও কমলা হ্যারিস।’

প্রতিবছর বৈশ্বিক ঘটনাবলির ওপর ব্যাপক প্রভাব ফেলা ব্যক্তি, গোষ্ঠী, বস্তু কিংবা কোনো পরিকল্পনাকে প্রতিবছর ‘টাইম’ বর্ষসেরা ঘোষণা করে। কোন ভালো বা খারাপ কাজের ওপর ভিত্তি করেই ‘পার্সন অফ দ্য ইয়ার’ বেছে নেয় টাইম ম্যাগাজিন৷ তবে সাধারণত ভালো কাজকেই বেছে নেয়া হয়।  যদিও উল্টো উদাহরণও আছে।  যেমন ২০১৬ সালে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে বেছে নেয়া হয়েছিল তাঁর মন্দ উপাখ্যানের জন্যই৷ ট্রাম্পকে ২০১৬ সালের ‘পার্সন অফ দ্য ইয়ার’ ঘোষণা করার পর বলা হয়েছিল ‘প্রেসিডেন্ট অফ দ্য ডিভাইডেড স্টেটস অফ আমেরিকা’৷ অর্থাৎ বিভক্ত মার্কিন মুলুকের প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প ৷

১৯২৭ সাল থেকে প্রতিবছর ‘পারসন অফ দ্য ইয়ার’ খেতাব দিয়ে আসছে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সাময়িকী টাইম। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের চার্লস লিন্ডবার্গ সর্বপ্রথম এ স্বীকৃতি পান। তিনি ছিলেন একজন বিমান চালক, প্রকৌশলী ও পুলিৎজার পুরস্কার বিজয়ী ব্যক্তি। প্রথমদিকে এটির নাম  ‘ম্যান অফ দ্য ইয়ার’ থাকলেও পরে বদলে রাখা হয় পারসন অব দ্য ইয়ার। ব্যক্তির পাশাপাশি বিভিন্ন গোষ্ঠী, আন্দোলন এমনকি ধারণাও বিগত বছরগুলোতে এ খেতাব পেয়েছে।

গত বছর পৃথিবী রক্ষায় জলবায়ু আন্দোলনে শামিল হওয়া সুইডিশ কিশোরী গ্রেটা থানবার্গকে ‘পারসন অফ দ্য ইয়ার’ ঘোষণা করেছিল টাইম। আর তার আগের বছর ২০১৮ তে সৌদি আরবের সাংবাদিক জামাল খাসোগি ও মিয়ানমারে বার্তা সংস্থা রয়টার্সের কারাদণ্ডপ্রাপ্ত দুই সাংবাদিক টাইমের মলাটে জায়গা করে নিয়েছিলেন।

মু: মাহবুবুর রহমান ; নিউজিল্যান্ডের মেসি ইউনিভার্সিটির পিএইচডি গবেষক

Related posts

সহকর্মীদের স্ত্রী নিয়ে ‘বাজে’ মন্তব্য, ভারতের সাবেক বিচারপতি গ্রেফতার

শাহাদাৎ আশরাফ

সেরাম ইনস্টিটিউটে অগ্নিকাণ্ডে নিহত ৫; প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বললেন কেউ হতাহত হয়নি

admin

খাগড়াছড়িতে দু’ দিন ব্যাপী উন্নয়ন মেলা শুরু

admin

Leave a Comment

Translate »