জুন ১৯, ২০২১
MIMS TV
এই মাত্র পাওয়া কোভিড ১৯ প্রিয় লেখক ব্রেকিং নিউজ মু: মাহবুবুর রহমান স্বাস্থ্য

ফাইজারের করোনা ভ্যাকসিন হালাল

মু: মাহবুবুর রহমান

ফাইজার-বায়োএনটেকের করোনা ভ্যাকসিন হালাল বলে মত দিয়েছেন ব্রিটিশ চিকিৎসকদের শীর্ষস্থানীয় সংগঠন ও একদল ইসলামি বিশেষজ্ঞ। দ্য ব্রিটিশ ইসলামিক মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন (বিমা) এক বিবৃতিতে বলেছে, প্রকাশিত সবগুলো তথ্য যাচাই করে তারা নিশ্চিত হয়েছে যে ভ্যাকসিন উৎপাদনে কোনো পশুপণ্য বা পশু থেকে সংগৃহীত কোনো কোষ ব্যবহার করা হয়নি।

বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে ব্রিটেনে গণহারে ফাইজার-বায়োএনটেকের তৈরি করোনা ভ্যাকসিন প্রয়োগ শুরু হয়েছে গত ৮ই ডিসেম্বর থেকে। টিকা প্রয়োগ উপলক্ষে ব্রিটেনে রীতিমতো উৎসবের আমেজ বিরাজ করছে। দেশটির স্বাস্থ্যমন্ত্রী থেকে শুরু করে প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন পর্যন্ত উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে সবাইকে টিকা নেয়ার আহবান জানিয়েছেন। দেশজুড়ে করোনা টিকার উৎসব চললেও এরই মধ্যে এই টিকা হালাল না হারাম? এ নিয়ে লন্ডনের মুসলিম কমিউনিটিতে বিতর্ক শুরু হয়।

করোনা ভ্যাকসিন নিয়ে বিতর্ক কিংবা  বিভ্রান্তির কারণে ব্রিটিশ ইসলামিক মেডিকেল এসোসিয়েশন (বিমা) তাদের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, তারা নিশ্চিত ব্রিটেনে যে ফাইজার ভ্যাকসিনের প্রয়োগ শুরু হয়েছে সেটিতে কোনো ধরনের পশুর চর্বি বা অংশ নেই। অর্থাৎ ইসলামী বিধান অনুযায়ী এটি হালাল। তারা আরও উল্লেখ করে, ভ্যাকসিনটি স্বতন্ত্র মেডিসিন রেগুলেটরি বডি দ্বারা পরীক্ষিত তাই এটা নিশ্চিত যে সাধারণ অন্যান্য ভ্যাকসিনে যেমন সামান্য জ্বর আসে তেমন ছাড়া বড় কোনো পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াও নেই।

ব্রিটেনের প্রভাবশালী বেশ কয়েকজন দেওবন্দী আলেমও ফাইজারের টিকার বিষয়ে হালাল ফতোয়া দিয়েছেন। যাদের মধ্যে রয়েছেন, দারুল উলুম ব্লাকবার্নের ইউসুফ সাব্বির ও মুফতি সাব্বির আহমদ। এছাড়াও দারুল উলুম বারী’র মুফতি মুহাম্মদ তাহির এবং এনএইচএস-এর পরামর্শদাতা কালিঙ্গল রিয়াদ। তাদের দেয়া ফতোয়াতেও বলা হয়েছে, প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে ফাইজারের ভ্যাকসিনটি হালাল।

আলেমরা বিবৃতি দিয়ে বলেন, আমরা ফাইজার কোম্পানীর কাছে টিকার উপাদানের ব্যাপারে জানতে চেয়েছি। তারা আমাদেরকে টিকার ব্যাপারে বিস্তারিত সব উপাদান দেখিয়েছে। এসময় কোলেস্টেরল নিয়ে একটু সমস্যার সৃষ্টি হয় যা মূলত প্রাণীর চর্বি থেকে আসে। কিন্তু এটা মুরগির ডিম থেকেও পাওয়া যায়। যা তারা বিস্তারিত উল্লেখ করেছেন।

এ প্রসঙ্গে ইসলামিক স্কলার ও মিডিয়া ব্যক্তিত্ব মাওলানা আব্দুর রহমান মাদানী বলেন, করোনা  টিকায় খারাপ কিছু আছে বলে জানা নেই। যদিও কিছু থেকে থাকে তারপরও বিকল্প না থাকায় জীবন বাঁচানোর তাগিদে এটা জায়েজ। যেমন ফ্লু জাবে জেলাটিন আছে বলে আমরা জানি সেটা এনিমেল ফ্যাট থেকে কিনা সেটা এখনও শিওর না কিন্তু আমাদের বয়স্ক অনেকের জীবন বাঁচাতে এটা ব্যবহারে ক্ষতি নেই।

ইসলামিক শরীয়া আইন বিশেষজ্ঞ ও পূর্ব লন্ডনের ম্যানরপার্ক শাহজালাল জামে মসজিদের প্রধান ইমাম মুফতী আব্দুর রহমান মনোহরপুরী বলেন, এ পর্যন্ত যেহেতু করোনা ভ্যাকসিনে কোনো খারাপ কিছুর খবর আমরা পাইনি, তাই জীবন বাঁচাতে এটা গ্রহণ করা যাবে। তিনি আরও বলেন- ফাইজারের ভ্যাকসিন নিলে আমাদের ইসলামিক মূল্যবোধ বা চেতনা লোপ পাবে- এ ধরনের বার্তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়ানো হচ্ছে, যার কোনো ভিত্তি নেই। তাই এসব থেকে সবার সচেতন থাকতে হবে।

ইসলামী মতে, কেউ যদি কঠিন খাদ্য সংকটে পড়ে এবং তার কাছে হালাল খাবারের মজুদ না থাকে অর্থাৎ হারাম না খেলে সে মারা যাবে – এ অবস্থায় জীবিত থাকতে পারে সে পরিমাণ হারাম খাবার গ্রহণও ইসলামে বৈধ। তবে তা যদি বিষ হয় তবে তা নিষিদ্ধ আছে। আল্লাহ তাআলা পবিত্র কোরআনে ইরশাদ করেন, ‘সুতরাং যে বাধ্য হবে, অবাধ্য বা সীমা লঙ্ঘনকারী না হয়ে, তাহলে তার কোনো পাপ নেই। নিশ্চয় আল্লাহ ক্ষমাশীল, পরম দয়ালু।‘ (সুরা বাকারা, আয়াত: ১৭৩)

যদিও আমি ইসলামী বিশেষজ্ঞ নই তবুও একজন ফার্মাসিস্ট হিসাবে আমার জানতে ইচ্ছা করে ওষুধ কিভাবে হারাম হয়? ওষুধ তো মানুষের জীবন বাঁচানোর উপাদান। পৃথিবীতে করোনাকালীন এই কঠিন সময়ে যখন ওষুধ বিজ্ঞানীরা আমাদের আশার আলো দেখালেন, পরীক্ষা-নীরিক্ষা করে জানালেন করোনাভাইরাসের টিকা আবিষ্কার হয়েছে। তখন আমরা তাদের এই আবিস্কারের প্রতি কৃতজ্ঞতা না জানিয়ে উল্টো এর সমালোচনায় ব্যস্ত থাকলাম!

উল্লেখ্য, এদিকে ইন্দোনেশিয়ার কর্মকর্তারা বলেছেন, দেশটির সর্বোচ্চ মুসলিম ধর্মীয় সংগঠন চীনভিত্তিক সিনোভ্যাক বায়োটেকের টিকাকে হালাল ঘোষণা করতে পারে বলে আশা করা হচ্ছে। বিশ্বের সবচেয়ে জনবহুল মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ দেশটির মানব উন্নয়ন ও সংস্কৃতিমন্ত্রী মুহাদজির আফেদী এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, করোনা টিকার ব্যাপারে ইন্দোনেশিয়ান ওলামা কাউন্সিলের একটি গবেষণা শেষ হয়েছে এবং হালাল ফতোয়ার জন্য কাউন্সিলের কাছে তা জমা দেয়া হয়েছে।

গোটা বিশ্বে ইতোমধ্যে ৭ কোটিরও বেশি মানুষের শরীরে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। আর আক্রান্তদের মধ্যে ইতোমধ্যে প্রাণ হারিয়েছেন ১৬ লাখেরও বেশি মানুষ। কাজেই এই মরণ ব্যাধি থেকে বাঁচতে আসুন কোনো অপপ্রচারে বিভ্রান্ত না হয়ে সুযোগ পেলেই করোনা টিকা গ্রহণ করি। যে যেখানে কিংবা যে দেশে অবস্থান করি, সুযোগ পেলেই করোনা টিকা গ্রহণ করে নিজেকে বাঁচাই আর আমার পরিবার, সমাজ, দেশ তথা পৃথিবীকে করোনা মহামারির হাত থেকে রক্ষা করি।

# মু: মাহবুবুর রহমান; ফার্মাসিস্ট, নিউজিল্যান্ডের মেসি ইউনিভার্সিটির পিএইচডি গবেষক

Related posts

কানাডায় পরিত্যক্ত আবাসিক স্কুল থেকে বাচ্চাদের দেহাবশেষ উদ্ধার

Irani Biswash

আবার লকডাউনের ঘোষণা মালয়েশিয়ায়

Irani Biswash

আগামী সপ্তাহের প্রথম দিকেই কানাডায় ভ্যাকসিনের প্রথম ডোজ : জাস্টিন ট্রুডো

admin

Leave a Comment

Translate »