জুন ১৯, ২০২১
MIMS TV
আন্তর্জাতিক এই মাত্র পাওয়া কোলকাতা চ্যাপ্টার ব্রেকিং নিউজ রাজনীতি

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কণ্ঠে ‘জয় বাংলা’ স্লোগানকে কটাক্ষ করেছে বিজেপি

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির পদত্যাগের দাবি জানিয়ে বিধান সভায় ভাষণে জয় বাংলা স্লোগান দিয়ে বক্তব্য শেষ করেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী ও তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

মমতা বলেন, দেশের পরিস্থিতি সরকারের নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে গিয়েছে। তাই অবিলম্বে প্রধানমন্ত্রী মোদির পদত্যাগ করা উচিত। বৃহস্পতিবার বৃহস্পতিবার কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে বিধানসভায় পেশ হওয়া প্রস্তাবের ওপর বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি এসব কথা বলেন। কৃষি আইনের বিরোধিতায় মমতা বলেন, হয় এই তিনটি বিল প্রত্যাহার করো, নয় সরকার গদি ছাড়ো। তিনি বিজেপি সরকারকে চ্যালেঞ্জ করে বলেন, ‘আগে দিল্লি সামলা, তারপর বাংলা।’

মমতা আর বলেন, ‘কেউ সরকার বিরোধী আন্দোলন করলেই তাকে সন্ত্রাসবাদী বলে দাগিয়ে দেওয়া হচ্ছে। ২৬ জানুয়ারি কয়েকটা ছোট ঘটনার জন্য কৃষকদের দেশদ্রোহী, খালিস্তানি বলা হচ্ছে। এর তীব্র বিরোধিতা করছি।’ কেন্দ্রের কৃষি আইন বিরোধী প্রস্তাব পাশের জন্য বিধানসভার বিশেষ অধিবেশন ডেকেছে তৃণমূল সরকার। এদিন প্রস্তাবের পাশে দাড়ানোর জন্য বাম – কংগ্রেসসহ বিরোধীদের আহ্বান জানান মুখ্যমন্ত্রী।

অপরদিকে, পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের কণ্ঠে ‘জয় বাংলা’ স্লোগানকে কটাক্ষ করেছে বিজেপি নেতারা। ভারতের বিধান সভায় মমতার মুখে জয় বাংলা স্লোগান নিয়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন তারা। বিজেপি নেতাদের দাবি, পশ্চিমবঙ্গকে ‘গ্রেটার (বৃহত্তর) বাংলাদেশ’ বানাতে চাইছে রাজ্যের ক্ষমতাসীন দল তৃণমূল! বৃহস্পতিবার সমাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে একটি পোস্ট করে এমনই অভিযোগ তুলেছেন বিজেপির পশ্চিমবঙ্গ সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তার দাবি, তৃণমূল যে ‘জয় বাংলা’ ধ্বনি দেয়, তা ‘ইসলামিক বাংলাদেশের’ জাতীয় স্লোগান। মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জির নাম না লিখলেও দিলীপ তার পোস্টে অভিযোগ করেছেন, ‘মাননীয়া লড়ছেন গ্রেটার বাংলাদেশের লক্ষ্যে’।

বিজেপির পশ্চিমবঙ্গ সভাপতি দিলীপ ঘোষের সুরে সুর মিলিয়ে রাজ্য বিজেপির মুখপাত্র শমীক ভট্টাচার্য বলেন, ‘মনে রাখতে হবে, ‘জয় বাংলা’ শেখ মুজিবুর রহমানের স্লোগান। ১৯৭১ সালের ১১ এপ্রিল বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দীন আহমদ প্রথম বেতার ভাষণে ‘জয় বাংলা’ স্লোগান ব্যবহার করেছিলেন। এখনো বাংলাদেশে এটি সমানভাবে রাজনৈতিক স্লোগান হিসাবে ব্যবহার হয়। সেই স্লোগান এখন কেন মাননীয়া ব্যবহার করছেন তা মানুষ বুঝতে পারছে।’

বিজেপির পশ্চিমবঙ্গ সভাপতি দিলীপ ঘোষের পোস্টের পরেই কড়া প্রতিবাদ জানিয়েছে তৃণমূল। দলের মুখপাত্র তথা সাবেক সংসদ সদস্য কুণাল ঘোষের বক্তব্য, ‘এখন বিজেপি দলটাই ‘গ্রেটার তৃণমূল’ হয়ে গিয়েছে। সেই হতাশারই প্রকাশ দিলীপ ঘোষের এই পোস্টে।’ তৃণমূলের প্রবীণ সংসদ সদস্য সৌগত রায়ের মন্তব্য, ‘দিলীপ ঘোষের এসব কথার কোনো জবাব দেওয়ার প্রয়োজন মনে করি না।’

Related posts

“ব্যাগ গুছিয়ে ফিরে যাওয়ার সময় হয়েছে ট্রাম্পের”

শাহাদাৎ আশরাফ

অবৈধভাবে আমদানি ও অনুমতি ছাড়া ওয়াকিটকি ব্যবহার : রিমান্ডে অং সান সু চি

admin

‘ইউসিএমএএস-২০২১’ প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন কানাডার অধরা রাইমা

Irani Biswash

Leave a Comment

Translate »