অগাস্ট ১, ২০২১
MIMS TV
এই মাত্র পাওয়া কোভিড ১৯ প্রিয় লেখক ব্রেকিং নিউজ মু: মাহবুবুর রহমান স্বাস্থ্য

অক্সফোর্ডের টিকা নিরাপদ ও কার্যকর

* মু: মাহবুবুর রহমান

করোনাভাইরাস (Coronavirus) ঠেকাতে অক্সফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় (Oxford University) এবং অ্যাস্ট্রাজেনেকা (AstraZeneca) যে টিকা (vaccine) উদ্ভাবন করেছে তা নিরাপদ এবং কার্যকর বলে দাবি করেছেন গবেষকরা। আর এ তথ্য  জানিয়েছেন অক্সফোর্ডের টিকা পরীক্ষায় সংশ্লিষ্ট নন, এমন বিজ্ঞানীদের একটি দল।

চিকিৎসা বিজ্ঞান বিষয়ক সাময়িকী ল্যানসেট ৮ ডিসেম্বর (মঙ্গলবার) এ–সংক্রান্ত একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। যাতে দাবি করা হয়েছে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার তৈরি টিকা করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়া কমাবে। সেই সঙ্গে অসুস্থতা ও মৃত্যু কমিয়ে আনবে। ৯ ডিসেম্বর বিবিসি অনলাইনও এ সংক্রান্ত খবর প্রকাশ করেছে।

অক্সফোর্ডের টিকা পরীক্ষায় সংশ্লিষ্ট নন, এমন বিজ্ঞানীদের দলটি টিকাটির মানবদেহে পরীক্ষার ফলাফল পর্যালোচনা করেছেন। তাঁরা ২০ হাজার স্বেচ্ছাসেবকের ওপর চালানো পরীক্ষার পূর্ণাঙ্গ ফলাফল পর্যালোচনা করে জানিয়েছেন টিকাটি নিরাপদ ও কার্যকর । তবে এই স্বেচ্ছাসেবকদের বেশির ভাগেরই বয়স ৫৫ বছরের কম। আর অক্সফোর্ড গবেষকরা আগেই দাবি করেছিলেন যে, তাদের উদ্ভাবিত টিকা বয়স্কদের দেহেও ‘কার্যকরী।

অক্সফোর্ডের টিকা সস্তা, সহজলভ্য, সহজে সংরক্ষণ করা যায় বলে ভারত-বাংলাদেশ সহ বহু দেশ তাদের দিকেই তাকিয়ে। যুক্তরাজ্য, ভারতসহ বিভিন্ন দেশে অক্সফোর্ডের টিকাটি জরুরি ভিত্তিতে ব্যবহারের আবেদনও করা হয়েছে। তবে অক্সফোর্ডের টিকাটি নিয়ে এখনো কিছু প্রশ্ন রয়ে গেছে। এর মধ্যে অন্যতম হলো, টিকাটি কত ডোজ বা মাত্রায় প্রয়োগ করা হবে।

সম্প্রতি (২৩ নভেম্বর ) প্রকাশিত টিকাটির অন্তর্বর্তী ফলাফলে জানা গেছে, এটি সার্বিকভাবে ৭০ শতাংশ কার্যকর। টিকা পরীক্ষায় দেখা গেছে, এটি পূর্ণ মাত্রায় দুই ডোজ প্রয়োগ করলে সর্বনিম্ন ৬২ শতাংশ কার্যকারিতা দেখা গেছে। তবে প্রথম ডোজ অর্ধেক মাত্রায় এবং দ্বিতীয় ডোজ পূর্ণ মাত্রায় (অর্থাৎ দেড় ডোজ় ) প্রয়োগ করলে ৯০ শতাংশ পর্যন্ত টিকাটি কার্যকর। অবশ্য কারও কারও দাবি, অক্সফোর্ড টিকার ‘দেড় ডোজ়’-এর সাফল্য, পুরোটাই ‘অ্যাক্সিডেন্টাল’। যদিও ভারতে অক্সফোর্ডের টিকা প্রস্তুতকারী সংস্থা সিরাম ইনস্টিটিউট জানিয়েছে, প্রতিষেধকটি নিরাপদ এবং ভারতে নির্বিঘ্নেই চলছে ট্রায়াল।

২৩ নভেম্বর প্রকাশিত গবেষণা নিবন্ধে জানানো হয়েছে, পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী ১ হাজার ৩৬৭ জন স্বেচ্ছাসেবীর শরীরে অক্সফোর্ড টিকাটির প্রথম ডোজ অর্ধেক মাত্রায় এবং দ্বিতীয় ডোজ পূর্ণ মাত্রায় (অর্থাৎ দেড় ডোজ়) প্রয়োগ করা হয়। এরপর দেখা গেছে, তাঁদের ক্ষেত্রে টিকাটি করোনাভাইরাসের বিরুদ্ধে ৯০ শতাংশ পর্যন্ত কার্যকর। স্বেচ্ছাসেবীদের মোট সংখ্যার তুলনায় দেড় ডোজ পাওয়া এই স্বেচ্ছাসেবীদের সংখ্যা অনেক কম হওয়ায় টিকাটির ডোজ বা মাত্রার বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তে পৌঁছানো কঠিন হয়ে উঠেছে। এ ছাড়া ওই ১ হাজার ৩৬৭ জন স্বেচ্ছাসেবীর কেউই ৫৫ বছরের বেশি বয়সী নন।

ডোজ বা মাত্রা এখনো চূড়ান্তভাবে নির্ধারিত না হলেও বিজ্ঞানীরা এটা প্রমান করেছেন যে অক্সফোর্ডের টিকা নিরাপদ ও কার্যকরী। সর্বশেষ ৮ ডিসেম্বর অক্সফোর্ডের টিকা পরীক্ষায় সংশ্লিষ্ট নন এমন বিজ্ঞানীরাও টিকাটির কার্যকারিতার প্রমান দিলো। অক্সফোর্ডের টিকার কার্যকারিতার খবর নিঃসন্দেহে বাংলাদেশ ও ভারতের জন্য অত্যন্ত সুখের বার্তা।  কারণ ভারতে ইতোমধ্যে অক্সফোর্ডের টিকাটি জরুরি ভিত্তিতে ব্যবহারের আবেদন করা হয়েছে। ভারতে অক্সফোর্ড – অ্যাস্ট্রাজেনেকার উদ্ভাবিত করোনা টিকা উৎপাদন করছে সিরাম  ইনস্টিটিউট, এবং টিকাটির নাম দেয়া হয়েছে কোভিশিল্ড। আর বাংলাদেশ অক্সফোর্ডের টিকা আনার জন্য ভারতের সিরাম ইনস্টিটিউটের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়েছে।

এরই মধ্যে ৫ ডিসেম্বর থেকে রাশিয়ায় করোনার টিকা স্পুটনিক ভি এবং ৮ই ডিসেম্বর থেকে যুক্তরাজ্যে ফাইজারের করোনা টিকা গণহারে প্রয়োগ শুরু হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের খাদ্য ও ওষুধ প্রশাসন- এফডিএও আসন্ন বড়দিনের আগে ফাইজার ও মডার্নার টিকাকে সবুজ সংকেত দিতে পারে। এমনকি ১০ ডিসেম্বর এফডিএর জরুরি ভিত্তিতে ব্যবহারের অনুমোদন পেতে পারে ফাইজারের টিকা। এর সঙ্গে অক্সফোর্ডের টিকাটিও যদি যুক্তরাজ্য ও ভারতে স্বীকৃতি পায় তবে তা অন্যান্য উন্নয়নশীল দেশেও করোনা মহামারির লাগাম টেনে ধরার নতুন সম্ভাবনা যোগ করবে।

* মু: মাহবুবুর রহমান, ফার্মাসিস্ট, নিউজিল্যান্ডের মেসি ইউনিভার্সিটির পিএইচডি গবেষক

Related posts

মালদ্বীপের কাছে ভারত মহাসাগরে পড়েছে চীনা রকেটের ধ্বংসাবশেষ

Mims tv : Powered by information

বিনামূল্যে করোনার ভ্যাকসিন দেবে সৌদি সরকার

শাহাদাৎ আশরাফ

চট্টগ্রামের নবাগত জেলা প্রশাসকের সাথে ক্যাব’র মতবিনিময় সভা

Mims tv : Powered by information

Leave a Comment

Translate »