অগাস্ট ৫, ২০২১
MIMS TV
এই মাত্র পাওয়া জীবনধারা নারী প্রবাস কথা প্রিয় প্রবাসী প্রিয় লেখক বাংলাদেশ ব্রেকিং নিউজ মু: মাহবুবুর রহমান

‘বাংলাদেশের উন্নয়নে নারীর ভূমিকা’ শীর্ষক ভার্চুয়াল আলোচনা অনুষ্ঠিত

মু: মাহবুবুর রহমান 

নতুন বছরের দ্বিতীয় দিনে কানাডা ভিত্তিক মীমস টিভি অনলাইন নিউজ পোর্টাল ‘বাংলাদেশের উন্নয়নে নারীর ভূমিকা ভূমিকা’ শীর্ষক এক আলোচনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। ভার্চুয়াল এ আলোচনায় অংশ নেন বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ও রাজশাহী ইউনিভার্সিটি ল’ অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন (রুলা) এর সভাপতি অ্যাডভোকেট নাহিদ সুলতানা যুথী ও সমাজ কর্মী জেসমিন সুলতানা পপি। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন কানাডার ক্যালগেরি হেলথ রিসার্চ কোঅর্ডিনেটর আহমেদ হোসেন, যিনি আবার কানাডা ভিত্তিক মীমস টিভি অনলাইন নিউজ পোর্টাল এর সত্ত্বাধিকারী।

বাংলাদেশ আজ এগিয়ে যাচ্ছে। উন্নয়নের সব সূচকেই বাংলাদেশ আজ পার্শ্ববর্তী দেশগুলোর চেয়ে এগিয়ে আছে। এই উন্নয়নে নারীরা কি ভূমিকা রাখছে তা নিয়েই ছিল এদিনের আলোচনা। ভার্চুয়াল এ আলোচনায় বাংলাদেশ থেকে যোগ দেন নাহিদ সুলতানা যুথী আর কানাডা থেকে যোগ দেন জেসমিন সুলতানা পপি।

‘উন্নয়নে আজকের বাংলাদেশ শীর্ষক’ আলোচনার শুরুতেই অ্যাডভোকেট নাহিদ সুলতানা যুথী বলেন, বাংলাদেশের প্রতিটি উন্নয়নেই রয়েছে নারীদের ভূমিকা। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সব পেশায় এখন নারীদের অংশগ্রহণ দৃশ্যমান। নারীরা তাদের মেধা ও যোগ্যতার মাধ্যমে অত্যন্ত দক্ষতার সঙ্গে সব দায়িত্ব পালন করছেন।

নাহিদ সুলতানা আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশের নারীদের কাছে একজন রোল মডেল। এই করোনাকালীন সময়েও যেভাবে প্রধানমন্ত্রী কাজ করে গেছেন তা সবার জন্যই অনুকরণীয় বলে উল্লেখ করেন তিনি।

উদ্যোক্তা হতে চাইলে একজন নারী কী কী প্রতিবন্ধকতার সম্মুখীন হয় এমন প্রশ্নের জবাবে নারী উদ্যোক্তা জেসমিন সুলতানা পপি বলেন, নারীরা এগিয়ে যাচ্ছে ঠিকই তবুও এখনো তৃতীয় বিশ্বের দেশগুলোতে নারীর এগিয়ে যাওয়ার পথে কিছু প্রতিবন্ধকতা তো আছেই। সেগুলোকে কাটিয়ে উঠতে হলে সবার আগে নিজেকে শিক্ষিত হতে হবে বলে মত দেন তিনি। নারীরা যত শিক্ষিত হবে সমাজ তত এগিয়ে যাবে বলেও উল্লেখ করেন জেসমিন সুলতানা পপি।

আইনজীবী ছাড়াও বিভিন্ন সামাজিক কাজে যুক্ত থাকতে গিয়ে কোনো প্রতিবন্ধকতার সম্মুখীন হতে হয় কিনা এমন প্রশ্নের উত্তরে অ্যাডভোকেট নাহিদ সুলতানা বলেন, কিছু সমস্যা তো আছেই কিন্তু সেগুলো কাটিয়ে উঠতে কাজ করে যাচ্ছি আমরা। তিনি বলেন, নারীদেরকে তাদের কর্মদক্ষতার মাধ্যমে, নীতি আদর্শের মাধ্যমে, সততার মাধ্যমে প্রমান করতে হবে যে, তারাও পুরুষদের পাশাপাশি এগিয়ে যাচ্ছে।

নারীর ক্ষমতায়নে সরকারের নেয়া বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা উল্লেখ করে নাহিদ সুলতানা বলেন, বর্তমান সরকার নারী বান্ধব সরকার। এ সরকারের সরকার প্রধান একজন নারী, স্পিকার নারী, দেশের বিভিন্ন উচ্চ পদস্থ পদে আজ আসীন আছেন নারীরা। তিনি আরো বলেন, নারীর সার্বিক উন্নয়নের জন্য ‘জাতীয় নারী উন্নয়ন নীতিমালা-২০১১’, নারী উন্নয়নে জাতীয় কর্মপরিকল্পনা ২০১৩-২৫, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন-২০০০, পারিবারিক সহিংসতা (প্রতিরোধ ও সুরক্ষা) বিধিমালা ২০১৩ সহ যৌতুক নিরোধ আইন, ‘বাল্যবিবাহ নিরোধ আইন’ ও ‘বাল্যবিবাহ নিরোধ বিধিমালা’ প্রণয়ন করেছে বর্তমান সরকার।

দেশের উন্নয়নে প্রবাসী নারীদের ভূমিকার বিষয়ে অ্যাডভোকেট নাহিদ সুলতানা যুথী বলেন, বিদেশ থেকে যে পরিমান রেমিট্যান্স আসছে তার অর্ধেকই তো আসছে প্রবাসী নারীদের কাজের মাধ্যমে। কারণ বিদেশে তো আর কোনো নারী বাসায় বসে থাকে না তারাও স্বামীর পাশাপাশি সমানভাবে কাজ করে। বাংলাদেশ যে আজ উন্নয়নের রোল মডেল তার পিছনে নারীদের ভূমিকা পুরুষদের চেয়ে কোনো অংশেই কম নয় বলে মন্তব্য করেন তিনি।

করোনা মহামারীর বিস্তার রোধে মাস্ক ব্যবহারের কোনো বিকল্প নেই। আর গত বছরের মার্চ মাস থেকে নিজের কমিউনিটি, ক্যালগেরি, কানাডাতে বিনা মূল্যে মাস্ক বিতরণ করে যাচ্ছেন জেসমিন সুলতানা। নতুন বছরে তাঁর মাস্ক বিতরণ কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে কিনা জানতে চাইলে জেসমিন সুলতানা জানান, অবশ্যই অব্যাহত থাকবে। যতদিন না এই পৃথিবী করোনা মুক্ত হয় ততদিন তিনি তাঁর নিজের কমিউনিটি ও কানাডার বাহিরেও তাঁর ফ্রি মাস্ক বিতরণ কার্যক্রম অব্যাহত রাখবেন বলে জানান। কারণ বিশেষজ্ঞদের মতে, করোনা টিকা পাবার পরও আমাদেরকে মাস্ক ব্যবহার চালিয়ে যেতে হবে যতদিন না সবাই টিকা পায়।

পারিবারিক সহিংসতার বিষয়ে জানতে চাইলে অ্যাডভোকেট নাহিদ সুলতানা যুথী বলেন এ ধরণের সহিংসতা বিশ্বের সব দেশেই আছে। তবে উন্নত দেশে যেমন বিশেষ একটি নম্বরে ফোন দিলে তাৎক্ষণিক পুলিশ চলে আসে এমনটি হয়তো বাংলাদেশে নেই। তবে উন্নত দেশগুলোর মতো ঐ রকম তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা বাংলাদেশেও যাতে গ্রহণ করা হয় সেজন্য বর্তমান সরকারের কাছে অনুরোধ জানান অ্যাডভোকেট নাহিদ সুলতানা যুথী। আর পারিবারিক সহিংসতা রোধে পারিবারিক শিক্ষা ও সামাজিক সচেতনতার কোনো বিকল্প নেই বলে মত দেন তিনি।

আলোচনা শেষ করার আগে সঞ্চালক আহমেদ হোসেন জানান, এদিনের আলোচনায় যে দুজন অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, অ্যাডভোকেট নাহিদ সুলতানা যুথী ও জেসমিন সুলতানা পপি – তাঁরা সম্পর্কে আপন বোন। অ্যাডভোকেট নাহিদ সুলতানা যুথীর আরেকটি পরিচয় আছে সেটা হলো তিনি বর্তমান যুবলীগ চেয়ারম্যান শেখ ফজলে শামস পরশের সহধর্মিনী। অর্থাৎ বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের প্রতিষ্ঠাতা শেখ মণির পুত্রবধূ।

আলোচনা শেষ করার আগে অ্যাডভোকেট নাহিদ সুলতানা যুথী জানান, ডিজিটাল বাংলাদেশে তিনি ঘরে বসেই আদালতের কাজ করতে পারছেন। আর এটা সম্ভব হয়েছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার যোগ্য নেতৃত্বের কারণে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে আরো শক্তিশালী করতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করার আহবানও জানান তিনি। পরিশেষে সবাইকে মাস্ক ব্যবহার, সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখাসহ সব স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলার অনুরোধ জানান এদিনের অতিথিরা। তারা আশা করেন ২০২১ হবে করোনামুক্ত বাংলাদেশ।

# মু: মাহবুবুর রহমান ; নিউজিল্যান্ডের মেসি ইউনিভার্সিটির পিএইচডি গবেষক

Related posts

আর্জেন্টিনার ঘরোয়া ফুটবল ম্যাচের আগে রিভারপ্লেটে করোনার থাবা

Irani Biswash

অগ্নিকাণ্ডে নিঃস্ব

Irani Biswash

সামাজিক অনুষ্ঠান, বইমেলাসহ বিনোদনকেন্দ্র বন্ধের সুপারিশ

Mims tv : Powered by information

Leave a Comment

Translate »