অগাস্ট ৪, ২০২১
MIMS TV
কোভিড ১৯

করোনার কারণে শরণার্থী কম নেবে অস্ট্রেলিয়া

করোনা সংক্রমণের ঝুঁকির কারণে বছরে শরণার্থী গ্রহণের সংখ্যা ১৮,৭৫০ থেকে ১৩,৭৫০ এ নামিয়ে আনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে অস্ট্রেলিয়া সরকার। তবে সরকারের এ সিদ্ধান্তকে বেদনাদায়ক বলছে অস্ট্রেলিয়ার শরণার্থী কাউন্সিল।

খুব শিগগিরই এই ব্যবস্থা কার্যকর করছে অস্ট্রেলিয়া সরকার। দেশটিতে বাস্তুচ্যুত জনগণকে পুনর্বাসনের ইতিহাস দীর্ঘদিনের। ১৯৪৫ সাল থেকে আট লাখ শরণার্থীকে আশ্রয় দিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। সেই কর্মসূচিতে এবার পরিবর্তন আনতে যাচ্ছে কোভিড-১৯।

আশেপাশের দেশগুলোর সঙ্গে শরণার্থী বিষয়ক নেটওয়ার্ক গড়ে তুলেছে অস্ট্রেলিয়া৷ এর আওতায় শরণার্থী শিবির করা হয়েছে পাপুয়া নিউগিনি ও নাউরুতে৷ সেসব দেশেই তাঁদের স্থায়ীভাবে রাখার পরিকল্পনা করা হচ্ছে। অস্ট্রেলিয়ায় যাওয়ার আগে ওই সব দেশেই শরণার্থীদের জিজ্ঞাসাবাদ করতো অ্যাবোট-এর পূর্ববর্তী সরকার। এই পদ্ধতিও বাতিল করে দিয়েছে অ্যাবোট সরকার।

ওই সব দেশেই শরণার্থীদের রাখার ব্যবস্থা করছে বর্তমান সরকার৷ এ ক্ষেত্রে ওই সব দেশে নির্যাতন করা হয় না বলে যুক্তি দেওয়া হচ্ছে।

তবে এই যুক্তি খণ্ডন করে জিলিয়ান ট্রিগস জানান, সেসব দেশে রাজনৈতিক আশ্রয়প্রার্থীদের জ্ঞিজ্ঞাসাবাদ করার মতো কাঠামো বা ব্যবস্থাপনাই গড়ে ওঠেনি৷ এইসব যুক্তিতে কর্ণপাত না করে ক্যানবেরা সরকার সম্প্রতি এক হাজার কিলোমিটার দূরে কম্বোডিয়াতে শরণার্থী আশ্রয় শিবির স্থাপনের চুক্তি করেছে৷

কেউ একবার অবৈধভাবে অস্ট্রেলিয়ায় প্রবেশের সময় ধরা পড়লে ভবিষ্যতে আর স্থায়ীভাবে থাকার অনুমোদন পাওয়ার সম্ভাবনা নেই৷ সাময়িকভাবে থাকার অনুমোদন পেতে পারেন। এছাড়াও বঞ্চিত হন আইনি সহায়তা ও বিমার সুযোগ সুবিধা থেকেও। বহিষ্কৃত হওয়ার ঝুঁকি থাকে ছোটখাট ত্রুটিতেও৷

Related posts

আগামী ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে শুরু হবে গণ টিকাদান, কেন্দ্রেও অনলাইন নিবন্ধন করা যাবে

Mims tv : Powered by information

মডার্নার তৈরি কোভিট ১৯ ভ্যাকসিন ব্যবহারেরও অনুমোদন দিয়েছে কানাডা

Mims tv : Powered by information

বেক্সিমকোকে অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার ভ্যাকসিন আমদানির অনুমতি দিয়েছে ঔষধ প্রশাসন

Mims tv : Powered by information

Leave a Comment

Translate »