অগাস্ট ৫, ২০২১
MIMS TV
আন্তর্জাতিক কোলকাতা চ্যাপ্টার রাজনীতি

সামনে পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভা নির্বাচন : রাজনৈতিক শিবিরে দলবদলের গুঞ্জন

বিধানসভা নির্বাচনের বাকি এখনও প্রায় সাত মাস। কিন্তু এরই মধ্যে ভারতের পশ্চিমবঙ্গে শুরু হয়েছে প্রধান দুই রাজনৈতিক শিবিরে দলবদলের নানা গুঞ্জন। বিশেষ করে, পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকারের পরিবহনমন্ত্রী শুভেন্দু অধিকারীর বিজেপিতে যোগ দেওয়ার কথা উড়ে বেড়াচ্ছে বাতাসে।

নন্দিগ্রাম আন্দোলনের অন্যতম নেতা শুভেন্দু অধিকারী। ২০১১ সালে পশ্চিমবঙ্গ সরকার ক্ষমতায় আসার পেছনে রাজ্যবাসীর যে জনসমর্থন পেয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মনে করা হয়; নন্দীগ্রাম ও সিঙ্গুর আন্দোলন সেই জন-ভিতটাই তৈরি করে দিয়েছিল।
সেই নন্দিগ্রাম আন্দোলনের প্রধান মুখ শুভেন্দু অধিকারী তার নিজের দলের বিরুদ্ধে কঠোর অবস্থান নিয়েছেন বলে তার সম্প্রতি বিভিন্ন সভা-সমাবেশ থেকে উঠে এসেছে। এমন কী কলকাতায় মমতার বাড়ির ১শ’ মিটার দূরেও চোখে পড়ছে শুভেন্দু অধিকারীর অনুগামীদের পোস্টার।
তবে এসব নিয়ে কথা বলতে নারাজ শুভেন্দু অধিকারী। আর তৃণমূলও এটা তেমন গুরুত্ব দিতে রাজি না।
তৃণমূল নেতা সাবেক পরিবহনমন্ত্রী মদন মিত্র বলেন, মানুষের মনে নাম লেখানোর জন্য আমরা রাজনীতি করি। পশ্চিমবঙ্গের সাড়ে ৯ কোটি মানুষের মনে যে নামটি রয়েছে তা হলো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
বিজেপি নেতা জয়প্রকাশ মজুমদার জানান, তৃণমূলের সবনেতাকর্মীরা ভাবছে, আমি কি দলে যোগ্য সম্মান পাচ্ছি? দল কি আমাকে প্রয়োজনীয় মনে করছে? তৃণমূলের রাজনীতির কোনো ভবিষ্যত আছে কি এই রাজ্যে? এ প্রশ্নগুলো এখন তৃণমূলের নেতাকর্মীদের মধ্যে ঘোরপাক খাচ্ছে। রাজনীতিতে দল বদল খুবই স্বাভাবিক ঘটনা।
২৯৪ আসনের বিধানসভা পশ্চিমবঙ্গ। সবশেষ ভোটে তৃণমূল ২১১ আসন পেয়ে দ্বিতীয়বারের মতো ক্ষমতায় ফেরে। বিজেপি মাত্র ৪টি আসন পেয়েছিল।
তবে ২০১৯ এর লোকসভা ভোটে ৪২ আসনের রাজ্যটিতে বিজেপি এককভাবে ১৮ আসন পায়। বিধানসভার হিসাব করলে দাঁড়ায় ১২০টি আসন। আর এতেই ২০২১ সালে ক্ষমতায় যাওয়ার স্বপ্ন দেখছে গেরুয়া শিবির।

Related posts

শ্রদ্ধা ও ভালবাসায় বঙ্গবন্ধুর শতবর্ষ

Mims tv : Powered by information

‘টিকা ছাড়া চলাফেরায় শাস্তি’র সিদ্ধান্ত প্রত্যাহার

razzak

আর্মেনিয়ার কাছ থেকে আরও ছয় গ্রাম দখলে নিল আজারবাইজান

Mims tv : Powered by information

Leave a Comment

Translate »